যেকোন মূল্যে টঙ্গীতে ইজতেমা হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

0
218

ইসলাম বিডি ডেস্ক:: যেকোন মূল্যে টঙ্গীতে এই আয়োজন করা হবে মন্তব্য করেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ। সোমবার (২১ জানুয়ারি) বিকালে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বৈঠক শেষে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ধর্মপ্রতিমন্ত্রী জানান, একপক্ষের উপস্থিতি কম থাকায় বুধবার আবারও বৈঠকের দিন ধার্য করা হয়েছে। তবে দ্বিমত থাকলেও টঙ্গির ময়দানে একসাথে ইজতেমা করার আহ্বান জানান তিনি।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আবদুল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, ‘সরকারের পক্ষ থেকে একটি দাবি আছে, তাহল একসাথে ইজতেমা হতে হবে।’

উপমহাদেশে সুন্নী মতাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় সংঘ তাবলিগ জামাতের মূলকেন্দ্র ভারতের দিল্লিতে। মাওলানা সাদের দাদা ভারতের ইসলামি পণ্ডিত ইলিয়াছ কান্ধলভি ১৯২০ এর দশকে তাবলিগ জামাত নামের এই সংস্কারবাদী আন্দোলনের সূচনা করেন।

মাওলানা ইলিয়াছের মৃত্যুর পর তার ছেলে মাওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ এবং তারপর মাওলানা ইনামুল হাসান তাবলিগ জামাতের আমিরের দায়িত্ব পালন করেন। মাওলানা ইনামুলের মৃত্যুর পর একক আমিরের বদলে সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার দেওয়া হয় একটি শূরা কমিটির উপর।

মাওলানা জুবায়েরের মৃত্যুর পর মাওলানা সাদ আমিরের দায়িত্ব নেন এবং একক নেতৃত্বের নিয়ম ফিরিয়ে আনেন। কিন্তু মাওলানা জুবায়েরের ছেলে মাওলানা জুহাইরুল হাসান তখন নেতৃত্বের দাবি নিয়ে সামনে আসেন এবং তার সমর্থকরা নতুন করে শুরা কমিটি গঠনের দাবি জানান। কিন্তু সাদ তা প্রত্যাখ্যান করলে বিরোধ বড় আকার ধারণ করে।

নেতৃত্ব নিয়ে দিল্লির মারকাজ এবং দেওবন্দ মাদ্রাসার অনুসারীদের মধ্যে এই দ্বন্দ্ব প্রকট আকার ধারণ করে গত বছর জানুয়ারিতে ঢাকায় বিশ্ব ইজতেমার সময়। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করে আসা সাদ কান্ধলভি বিরোধীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন। শেষ পর্যন্ত ইজতেমায় অংশ না নিয়েই তাকে ঢাকা ছাড়তে হয়। তারপর থেকে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলছে।

সোমবার বৈঠকের পর তাবলীগের সাদ পন্থি মুরব্বি আশরাফ আলী জানান, সরকার নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিলে একসাথে ইজতেমা করা সম্ভব। তবে দুপক্ষকে এক করা এটি রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত।

তিনি বলেন, বিশ্ব তাগলীগের প্রধান মুরব্বি মাওলানা সা’দ। তিনি উপস্থিত না থাকলে বিদেশি মেহমান আসবে না বলেও মন্তব্য করেন আশরাফ আলী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here