নড়াইলের সেই স্কুলের ৫৯ শিক্ষার্থীর কলেজে ভর্তি অনিশ্চিত

0
175

আইসিটি বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষার নম্বর যোগ না হওয়ায় প্রথমে ফেল আসলেও পরে পাস করা নড়াইল সদরের চালিতাতলা সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫৯ শিক্ষার্থীর কলেজে ভর্তির বিষয়টি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। তারা অনলাইনে কলেজে ভর্তির জন্য আবেদনের সুযোগ পাচ্ছে না।

যশোর শিক্ষা বোর্ডের অভ্যন্তরীণ অনলাইনে ৫৯ জনের ফল প্রকাশ করলেও ভর্তির সময় টেলিটক সিমের মাধ্যমে অনলাইনে ফলাফলে তাদের অকৃতকার্য দেখানো হচ্ছে।

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এবার এসএসসি পরীক্ষায় এ স্কুলের ৭১ জন নিয়মিত পরীক্ষার্থীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহারিক পরীক্ষার ফল যথাসময়ে তৈরি করে নড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়। নিয়ম অনুযায়ী কেন্দ্র এ ব্যবহারিক পরীক্ষার নম্বরপত্র বোর্ডে পাঠাবে। কিন্তু এসএসসির ফলাফলে দেখা যায়, তাদের মধ্যে মাত্র তিনজনের ব্যবহারিক পরীক্ষার নম্বর যোগ হয়েছে। বাকি ৬৮ জনের নম্বর যোগ না হওয়ায় তাদের অকৃতকার্য দেখানো হয়।

এরপর গত ৭ মে চালিতাতলা সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ধ্রুব কুমার ভদ্র এবং কেন্দ্র সচিব ও নড়াইল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহিতোষ কুমার দে আইসিটি ব্যবহারিক পরীক্ষার নম্বরপত্র নিয়ে যশোর বোর্ডে যান। বোর্ড বিষয়টি দেখে ব্যবহারিক পরীক্ষার নম্বর যোগ করায় ৬৮ জনের মধ্যে ৫৯ জনকে পাস দেখালেও জটিলতা থেকে যায়।

চালিতাতলা সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ধ্রুব কুমার ভদ্র জানান, বিষয়টি নিয়ে যশোর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্রের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান- ফলাফলের বিষয়টি এখন বুয়েট কর্তৃপক্ষ দেখভাল করছে। তারা জানিয়েছে, রেজাল্ট সংশোধন করতে কয়েকদিন সময় লাগবে।

জানা গেছে, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নীতিমালা অনুযায়ী দ্বিতীয় পর্যায়ে আবেদন ১৯ ও ২০ জুন এবং তৃতীয় ধাপের আবেদনের তারিখ ২৪ জুন। আগামী ১ জুলাই থেকে একাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হবে।